• মঙ্গলবার   ১৫ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ১ ১৪২৮

  • || ০৫ জ্বিলকদ ১৪৪২

জাগ্রত জয়পুরহাট

পাঁচবিবিতে পুলিশের সহযোগিতায় ৫ দিনেই জলাবদ্ধতা মুক্ত গ্রামবাসী

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ২২ মে ২০২১  

জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানার রয়গ্রামে প্রভাবশালী এক ব্যক্তির কারণে এক বছর ধরে জলাবদ্ধতার মধ্যে ডুবে ছিলো এলাকাবাসী। কোথাও অভিযোগ দিয়ে পানিবন্দী দশা থেকে মুক্তি মেলেনি তাদের। পরে বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং পরিচালিত ফেইসবুক পেজের ইনবক্সে সহায়তা চাওয়ার পাঁচদিনের মধ্যেই জলাবদ্ধতারি নিরসন করা হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় জয়পুরহাট পুলিশ সুপার মাসুম আহম্মেদ ভুঞা এ তথ্য জানান। পুলিশ সুপার জানান, বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং পরিচালিত ‘বাংলাদেশ পুলিশ অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ’ এর ইনবক্সে জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানার রয়গ্রামের এক বাসিন্দা গত ১৫ মে একটি বার্তা পাঠান।

বার্তায় তিনি উল্লেখ করেন, এলাকার একজন প্রভাবশালী ব্যক্তির স্বেচ্ছাচার নির্মাণ কাজের কারণে গ্রামের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে গ্রামে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামের মানুষের চলাফেরা বন্ধ হয়ে গেছে। দীর্ঘ এক বছর যাবত গ্রামের মানুষ এই সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। নানাভাবে চেষ্টা করেও তারা এর কোনো সমাধান পাননি। তাই, গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে তিনি পুলিশের সহযোগিতা চেয়ে বার্তা পাঠান।

এই বার্তাটি পেয়ে মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং এর পক্ষ থেকে পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেবকে অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়। পাঁচবিবির থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম রাইগ্রামের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের সঙ্গে কথা বলে বার্তায় প্রদত্ত তথ্যের সত্যতা পান।

মিডিয়া উইং এর পরামর্শে এ বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দৃষ্টিতে আনেন ওসি পলাশ চন্দ্র দেব। পরবর্তীতে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিদের উদ্যোগে উভয় পক্ষের সম্মতিতে এবং গ্রামের মানুষের অংশগ্রহণে জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রায় ১৫০ ফুট লম্বা ড্রেইন তৈরি করা হয়। এর ফলে অত্যন্ত শাস্তিপূর্ণভাবে সমস্যাটির সমাধান হয়। পাঁচ‌বি‌বি থানার ওসির নেতৃত্বে সমস্যা‌টি মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যে সমস্যাটির শান্তিপূর্ণ সমাধান হয়েছে বলে জানায় পুলিশ সদর দপ্তর।

সমস্যার সামাধান পেয়ে গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে ওই বার্তা প্রেরক ধন্যবাদ জানিয়ে আবার একটি বার্তা পাঠান। তিনি বার্তায় উল্লেখ লেখেন, ‘আসসালামু আলাইকুম, স্যার। আলহামদুলিল্লাহ। আপনাদের প্রশাসন এসে আমাদের পানি নিষ্কাশনের সুষ্ঠু ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। আপনাদের এমন সৎ, সাহসী নেতৃত্ব ও যুগান্তকারী পদক্ষেপের করণে দীর্ঘ এক বছরের পানি নিষ্কাশনের কষ্ট ও কঠোর দ্বন্দ সংঘাতের ভোগান্তি দূর হয়ে আজকের এই দিনটিতে গ্রামের অসংখ্য মানুষের রাস্তা চলাচল ও জলাবদ্ধ জীবন থেকে মুক্তির দিশা মিলল। আজকে যেন সবাই ঈদের আনন্দের মতো আনন্দিত। বাংলাদেশ পুলিশ প্রশাসনই পারে নিরীহ মানুষের বন্ধু হয়ে দেশ ও জাতির পাশে দাঁড়াতে।’

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট