• মঙ্গলবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

  • || ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাগ্রত জয়পুরহাট

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের রত্নখচিত মুকুটের দাম কত?

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ বহু মূল্যবান রত্নখচিত একটি মুকুট পরতেন। এটা ছিলো ব্রিটেনের রাজপরিবারের ঐতিহ্যবাহী এক মুকুট। দ্বিতীয় এলিজাবেথের ওই মুকুটের মূল্য কত জানেন? বিখ্যাত এ মুকুটের ওজন প্রায় আড়াই কিলোগ্রাম। এটা বেগুনি রঙের উজ্জল ভেলভেট কাপড়ে মোড়া। বেশ ভারী হওয়ায় মুকুটটি পরে কেউ মাথা ঝোঁকাতে পারে না। কারণ, মাথা ঝোঁকালে মাথা থেকে খুলে যাবে এ মুকুট। তাই মুকুট পরে থাকাবস্থায় কোনো লেখা পড়তে হলে তা চোখের সমানে এনে পড়তে হয়।

এই রত্নখচিত রাজমুকুটে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় হীরা কালিনান। দক্ষিণ আফ্রিকার খনি থেকে এ হীরা পান থমাস কালিনান। ওই সময় আফ্রিকার এ দেশটিতে ব্রিটিশ আধিপত্য ছিলো। পরে ওই হীরাটির মালিকানা পান ব্রিটেনের রাজা সপ্তম এডওয়ার্ড।

এ বিখ্যাত কালিনান হীরাটিকে ৯ টুকরা করা হয়েছিল বলে জানা গেছে। তার মধ্যে এ হীরার দু’টি টুকরা ব্রিটেনের রাজপরিবারের মুকুটে লাগানো হয়েছে। এ মুকুটটিই পরতেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। এছাড়া কালিনান হীরার বাকি সাত টুকরা তার ব্যক্তিগত সংগ্রহশালায় ছিলো।

১৯১০ সালে ওই হীরার অংশগুলো মুকুটে লাগানো হয়েছিল। এটা ব্রিটিশ রাজা পঞ্চম জর্জের রাজ্যাভিষেকের আগের ঘটনা। ব্রিটেনের রাজপরিবারের মুকুটে লাগানো এই কালিনান হীরার মূল্য সাড়ে ৫২ কোটি ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রা টাকায় এর দাম প্রায়  ৪ হাজার ৯২৪ কোটি টাকার বেশি।

তবে সকল মূল্যবান রত্নসহ মুকুটটির মূল্য অনেক বেশি। ওই হিসাবে এ বিখ্যাত মুকুটের মোট মূল্য সাড়ে তিনশ’ কোটি ডলার! এছাড়া এ মুকুটটির প্রতিটি অংশের আলাদা মূল্য রয়েছে। এতে ৭টা নীলকান্ত মণি আছে। এগুলোর মূল্য ২১ লাখ ৪২ হাজার ডলার।

সব মিলিয়ে তাহলে মুকুটটির মূল্য কত? ধারণা করা হয়, এই রত্নখচিত মুকুটের মোট মূল্য সাড়ে তিনশ’ কোটি ডলার! অর্থাৎ প্রায় ৩৩ হাজার ১৪৭ কোটি টাকার বেশি।

সূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট