• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৮ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

জাগ্রত জয়পুরহাট

ডুমুরিয়ায় মরিচ চাষে বাম্পার ফলন

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ১২ নভেম্বর ২০২২  

খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নের বরাতিয়া গ্রামের সবজি চাষী সুরেশ্বর মল্লিক। বাজার দর ভালা থাকায় অতিরিক্ত মুনাফার আশা পূরণ হয়েছে এই কৃষকের। মৌসুমী সবজি বেগুন ক্ষেতের মধ্যে সাথী ফসল হিসেবে কাঁচা মরিচের আবাদ করে বাম্পার ফলন পেয়েছে তিনি। বর্তমানে বাজার দর ভাল থাকায় অধিক লাভবান হবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন এ কৃষক।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বরাতিয়া এলাকার কৃষক সুরেশ্বর মল্লিক কৃষি কাজে বিশেষ অবদান রাখায় ২০১৮ সালে বাংলাদেশ সরকারের কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীন বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার ভূষিত হন তিনি। মৌসুমি সবজি বেগুন ক্ষেতের মধ্যে সাথী ফসল হিসেবে কাঁচা মরিচের আবাদ করছেন তিনি। স্থানীয় ভােক্তা সাধারণ ও বাজারের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে দেশীয় বল্টু উন্নত জাতের সাত হাজার মরিচের চারা রােপন করেছেন তিনি। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ দপ্তরের পরামর্শ এবং সঠিক পরিচর্যার মাধ্যমে অধিক ফলন পেয়েছেন মরিচের। তার ক্ষেত থেকে প্রতি ১৫ দিনে প্রায় ৭০০ কেজির অধিক পরিমাণ কাঁচা মরিচ ক্ষেত থেকে উঠছে। বর্তমান পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি মরিচ ৫০-৫৫ টাকা দরে বিক্রি করছেন। মরিচ চাষ করতে তার মােট খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। এর বিপরীত এ পর্যন্ত আড়াই লাখ টাকার অধিক মরিচ বিক্রি করছেন তিনি।

কাঁচা মরিচের বাম্পার ফলনের অনুভূতি জানিয়ে সুরেশ্বর মল্লিক বলেন, এ পর্যন্ত প্রায় আড়াই লাখ টাকায় মরিচ বিক্রি করছেন। আবহাওয়া অনুকূল থাকলে আরও লাখ টাকার মরিচ বিক্রির সম্ভবনা রেয়েছে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাে: ইনসাদ ইবনে আমিন জানান, সুরেশ্বর মল্লিক একজন পেশাদার কৃষক। তিনি বিভিন্ন প্রকার সবজি উৎপাদন ও সবজির বীজ উৎপাদন করে কৃষি কাজে বিশেষ অবদান রাখায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কারে ভূষিত হন।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট