বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ || ১১ বৈশাখ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৬:২৬, ১৬ মার্চ ২০২৩

ইমরানের ১৫ লাখ টাকার স্ট্রবেরি বিক্রির আশা!

ইমরানের ১৫ লাখ টাকার স্ট্রবেরি বিক্রির আশা!

বেড পদ্ধতিতে সুস্বাদু স্ট্রবেরী চাষে ইমরানের সাফল্য। সিরাজগঞ্জ এলাকার মাটি ও আবহাওয়া স্ট্রবেরী চাষের উপযোগী হওয়ায় তিনি এবছর তার পল্লিকানন নার্সারিতে রসালো এই ফলটির চাষ করে ব্যাপক ফলন পেয়েছেন। জনপ্রিয় ও চাহিদাপূর্ন এই ফলটি খুব রসালো ও খেতে চমৎকার। ফলটি বিদেশি হলেও বর্তমানে আমাদের দেশে এর চাষ হচ্ছে। আর এবছর ইমরান যা ফলন পেয়েছেন তাতে ১৫ লাখ টাকার স্ট্রবেরী বিক্রির আশা করছেন।

জানা যায়, তরুণ উদ্যোক্তা মো. রেজাউল ইসলাম ইমরান সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রহমতগঞ্জের বাসিন্দা। তিনি ২০১৭ সালে স্থানীয় একটি কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন শেষ করে কৃষি কাজে নিয়োজিত হন। স্ট্রবেরী একটি বিদেশি ফল। এটি মূলত শীতকালের ফল হলেও এখানে বেশ ভালো ফলন হয়েছে। ইমরানের পল্লিকানন নামে একটি নার্সারি আছে। সেখানে বিভিন্ন ফল, ফুল ও ঔষধি গাছের চারা বিক্রি করেন। গত দুই বছর যাবত স্ট্রবেরীর চাষ করছেন। এবার আশানুরূপ ফলন পেয়েছেন। আশা করছেন প্রায় ১৫ লাখ টাকার স্ট্রবেরী বিক্রি করতে পারবেন। তার দেখাদেখি স্থানীয় অনেকেই বানিজ্যিকভাবে এই ফলের চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। এখানকার উৎপাদিন ফল স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সরবরাহ হয়ে থাকে।

রেজাউল ইসলাম ইমরান বলেন, আমার একটি ছোটো নার্সারি রয়েছে। সেখানে আমি অনেকদিন যাবত ফলদ, বনজ ও ঔষধী চারা বিক্রি করে আসছি। গত ২ বছর যাবত আমি স্ট্রবেরীর চাষ করছি। প্রথম বছর ২ বিঘায় চাষ করেছিলাম। আর এবার ৫ বিঘা জমিতে এর চাষ করছি। এর চাষে কোনো প্রকার রাসায়নিক সারের ব্যবহার করিনি।

তিনি আরো বলেন, স্ট্রবেরী চাষে আমার ১০ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। আবহাওয়া ভালো থাকায় অনেক ফলন হয়েছে। প্রথমদিকে প্রতিকেজি ১০০০-১১০০ টাকা দরে বিক্রি করতে পারলেও এখন দাম কমেছে। বর্তমানে প্রতিকেজি ৮০০-৯০০ টাকা দরে বিক্রি করতে পারছি। পাইকাররা জমিতে এসেই কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। আশা করছি এবার ১৫ লাখ টাকার বিক্রি করতে পারবো। এতে এই বছর আমি ৫ লাখ টাকা লাভের আশা করছি।

পাইকার লাল মিয়া বলেন, অন্য জেলা থেকে স্ট্রবেরী কিনতে গেলে পরিবহন খরচেই অনেক টাকা চলে যেত। এখন আমাদের এখানেই এর চাষ হচ্ছে। এর গুণগত মানও ভালো। তাই কম দামে কিনে বিক্রি করতে পারছি।

সিরাজগঞ্জ জেলা কৃষি অফিসার আবু হানিফ বলেন, তরুণ উদ্যোক্তা রেজাউল ইসলাম ইমরান তার নার্সারিতে বিভিন্ন প্রজাতির দেশি-বিদেশি ফলের চারা বিক্রির পাশাপাশি বেড পদ্ধতিতে স্ট্রবেরি চাষ করে সফল হয়েছেন। চলতি বছর এই জেলার ৯-১০ জায়গায় এই ফলের চাষ হয়েছে। তার মধ্যে ইমরান একজন। আমরা সকল চাষিদের সব ধরনের সহযোগিতায় এগিয়ে আসবো।

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়