শুক্রবার   ১৪ জুন ২০২৪ || ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৬:১৭, ৩০ মার্চ ২০২৩

মেঘনায় ধরা পড়লো ৬ মণের শাপলা পাতা

মেঘনায় ধরা পড়লো ৬ মণের শাপলা পাতা

ভোলা সদরের রাজাপুর এলাকায় মেঘনা নদীতে জেলেদের জালে ধরা পড়েছে প্রায় ৬ মণ ২৩ কেজি ওজনের বিশাল এক শাপলা পাতা মাছ। পরে মাছটি ৫৫ হাজার টাকায় বরিশাল মোকামে বিক্রি করা হয়। এতো বড় শাপলা পাতা মাছ এর আগে রাজাপুর মেঘনায় ধরা পড়েনি বলে জানায় মৎস্য বিভাগ। 

ভোলা সদরের রাজাপুর ইউনিয়নের জেলে সাইদুল ইসলামের জালে বড় আকৃতির এ মাছটি ধরা পড়ে। জোয়ারে সাগর থেকে মাছটি নদীতে ভেসে এসেছে বলে ধারণা স্থানীয়দের। মাছটি এক নজর দেখতে উৎসুক লোকজন ঘাটে ভিড় জমায়।

স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ী মো. আকতার জানান, রাজাপুর এলাকার জেলে সাইদুলের জালে মাছটি ধরা পড়ে মাছটি। পরে মাছটি বরিশালের একটি আড়তে ৫৫ হাজার টাকা বিক্রি হয়েছে।

জেলে সাইদুল জানান, মঙ্গলবার বিকেলে ভোলার মেঘনা নদীতে মাছ শিকারে জাল ফেলেন। মাছ ধরার একপর্যায়ে ভারী কোনো বস্তু জালে আটকে পড়েছে বুঝতে পেরে স্থানীয় অন্যান্য জেলেদের সহযোগিতায় শাপলা পাতা মাছটি টেনে তুলেন তারা। পরে ঘাটে আনে বরিশালের আড়তে বিক্রি করা হয়।

এ ব্যাপারে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুল্লা বলেন, এটি একটি সামুদ্রিক মাছ। জোয়ারের সময় সাগর থেকে মাছটি নদীতে চলে আসে। তখন জেলেদের জালে মাছটি ধরা পড়ে। সাধারণত ছোট আকারের শাপলা পাতা মাছ মাঝেমধ্যে মেঘনায় ধরা পড়ে। তিনি আরও বলেন, বাজারে এই মাছের চাহিদা রয়েছে। বিরল প্রজাতির এই সামুদ্রিক মাছটিকে স্থানীয়ভাবে হাউস মাছ বলা হলেও এর নাম রে ফিন ফিস বা স্টিং ফিস। তবে এটি শাপলা পাতা মাছ নামেই বেশি পরিচিত।

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ