শুক্রবার   ১৪ জুন ২০২৪ || ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৬:৩৭, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সংসারের ইতি টেনে দুধ দিয়ে গোসল করলেন যুবক

সংসারের ইতি টেনে দুধ দিয়ে গোসল করলেন যুবক

সালিস বৈঠকে সংসারের ইতি টেনে বাড়ি ফিরে দুধ দিয়ে গোসল করছেন রুবেল ফকির (৩৫) নামে এক অটোরিকশাচালক। রোববার বিকেলে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার কুড়াগাছা ইউনিয়নের চাপাইদ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, রুবেল চাপাইদ গ্রামের হাসমত আলী ফকিরের ছেলে।

২০২১ সালের ২৭ মে পারিবারিকভাবে একই উপজেলার কুড়াগাছা উত্তরপাড়া গ্রামের সুরুজ আলীর মেয়ে রুমি আক্তারকে (৩০) বিয়ে করেন তিনি। সংসার জীবন শুরুর আগেই উভয়েরই বিয়ে হয়েছিল। তাদের উভয়ের সংসারেই একটি করে ছেলেসন্তান আছে। রুবেল মিয়া বিয়ের পর থেকেই উভয়ের সন্তানকে নিয়ে সংসার জীবন অতিবাহিত করছিলেন। কিছুদিন যাওয়ার পর থেকেই রুমি আক্তার তার নিজের সন্তানকে যত্ন করলেও রুবেলের সন্তানের প্রতি অবহেলা শুরু করেন। বিষয়টি রুবেলের নজরে এলে সংসারে মনোমালিন্য শুরু হয়। এ নিয়ে দাম্পত্য কলহ দিনদিন বাড়তে থাকে। একাধিকবার সালিস বৈঠক হলেও এর সমাধান হয়নি।

সম্প্রতি একে অপরের প্রতি নানান অভিযোগ তুলতে শুরু করেন। একপর্যায়ে রুবেল রুমি আক্তারের সন্তানকে বাড়িতে রাখতে অসম্মতি জানান। এ নিয়ে তাদের দ্বন্দ্ব আরও প্রকট হয়। অবশেষে রোববার কুড়াগাছা ইউনিয়নের চাপাইদ গ্রামে স্থানীয় মাতব্বরদের উপস্থিতিতে সালিস বৈঠক হয়। ওই বৈঠকে রুবেল রুমি আক্তারকে এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা দেওয়ার শর্তে তাদের দাম্পত্য জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটান। সালিস বৈঠকে রুবেল নগদ এক লাখ টাকা পরিশোধ করেন। বাকি ৩৫ হাজার টাকা দ্রুত পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দেন। বৈঠক শেষে রুবেল বাড়ি ফিরে পানির সঙ্গে দুধ মিশিয়ে গোসল করে মুক্তির স্বাদ গ্রহণ করেন। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

রুবেল ফকির বলেন, শান্তির আশায় গড়া সংসারে অশান্তি নেমে এসেছিল। সালিস, সালিস, সালিস আর ভালো লাগে না। অবশেষে উভয়ের সম্মতিতে সংসারে ইতি টেনে প্রশান্তি পাচ্ছি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সালিস বৈঠকের মাতব্বর আবদুল মান্নান ও ওসমান আলী। তারা বলেন, অটোরিকশাচালক রুবেল ও গৃহবধূ রুমি আক্তারের সম্মতিতেই তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে।

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ