মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ || ১০ আষাঢ় ১৪৩১

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত : ১৭:১৯, ২৩ মে ২০২৪

সুবর্ণজয়ন্তীতে স্পিকার

দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে কাজ করছে ইউসেফ

দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে কাজ করছে ইউসেফ
সংগৃহীত

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে ইউসেফ বাংলাদেশ কাজ করে যাচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার পর দেশের দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কারিগরি শিক্ষা ও কর্মসংস্থান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ইউসেফ নামে কর্মজীবী বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় পৃষ্ঠপোষকতা করেছিলেন।

বুধবার রাজধানীর বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেসা মুজিব কনভেনশন হলে ‘ইউসেপ বাংলাদেশ’র ৫০ বছর সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইউনিসেফ বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ড. মো. আলাউদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য দেন ইউনিসেফ বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্যসচিব ড. মো. আব্দুল করিম, ইউসেফ বোর্ড অব গভর্নরসের সাবেক চেয়ারম্যান পারভীন মাহমুদ, ইউসেফ অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য জেবা রশীদ চৌধুরী, এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম। সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার হাইকমিশনার লিলি নিকলস এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

স্পিকার বলেন, যুব সমাজকে কারিগরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কর্মসংস্থানে উদ্বুদ্ধ করে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডকে কাজে লাগাতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই। সে লক্ষ্যে বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থায় প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনা হয়েছে। আর উন্নত প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে তরুণ প্রজন্ম নিজেদেরকে উদ্যোক্তা হিসাবে গড়ে তুলতে পারে। তিনি আরও বলেন, দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্য নিয়ে ইউসেফ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। অসচ্ছল পরিবারের সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা আজ কর্মসংস্থানের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন-এটাই ইউসেফের সফলতা।

সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ

সর্বশেষ