• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

জাগ্রত জয়পুরহাট

হেফাজত নেতা আতাউল্লাহসহ তিন জন ৫ দিন করে রিমান্ডে

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২১  

২০১৩ সালে হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনসহ তিনজনের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম বাকী বিল্লাহর আদালত শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

অপর আসামিরা হলেন- হেফাজত ইসলামের ঢাকা মহানগরীর সহ-সভাপতি মাওলানা জুবায়ের আহমদ ও হেফাজত নেতা মাওলানা সানাউল হক।  

এদিন তিন আসামিকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় ২০১৩ সালের পল্টন থানার মামলায় সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে আদালত তাদের প্রত্যেকের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 
একইদিন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সহ-সভাপতি এবং বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমীর খুরশিদ আলম কাসেমীর পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।  

এদিকে গতকাল বুধবার হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব মুফতি শাখাওয়াত হোসাইন রাজী ও মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দির ২১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এদিন হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগরের সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা কোরবান আলী কাসেমীর সাত দিনের রিমান্ডও মঞ্জুর করেন আদালত। 

এর আগে, গত সোমবার মোহাম্মদপুর এলাকায় নাশকতার মামলায় হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। একইদিন হেফাজত নেতা মুফতি ফখরুল ইসলামের ২০১৩ সালে হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। 

গত রোববার ২০১৩ সালে হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের ঘটনায় মামলায় হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী, বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের আমীর জুনায়েদ আল হাবিব এবং কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব মাওলানা জালাল উদ্দিন আহমেদের সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এর আগে গত শনিবার হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সভাপতি জুবায়ের আহমদের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ অবরোধ কর্মসূচির নামে লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতের কর্মীরা। এ ঘটনায় পল্টন থানায় মামলা করা হয়।

সম্প্রতি হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশ বায়তুল মোকাররম মসজিদ, পল্টন, যাত্রাবাড়ী সহ বিভিন্ন স্থানে তাণ্ডব এবং ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে। এরপর এ ঘটনায় রাজধানীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা হয়। মামলার তদন্তে পুলিশসহ সরকারের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা তদন্তে নামে।

তদন্তের অংশ হিসেবে সেদিনের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী, গ্রেফতারকৃতদের দেয়া তথ্য, একইসঙ্গে ঘটনার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে জড়িতদের শনাক্ত করা হচ্ছে। পরে নিশ্চিত হওয়ার পরই সন্দেহভাজন আসামিদের গ্রেফতার করছে পুলিশ।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট