বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ || ১১ বৈশাখ ১৪৩১

প্রকাশিত: ১৩:৩৪, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে সহযোগিতায় আগ্রহী জাইকা

বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে সহযোগিতায় আগ্রহী জাইকা
সংগৃহীত

দেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের বাস্তব উন্নয়ন, দক্ষ মানবশক্তি তৈরি এবং এ খাতে শিক্ষার্থী, পেশাজীবীদের মধ্যে ‘নলেজ গ্যাপ’ কমাতে কার্যকর সহযোগিতায় আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (জাইকা)।

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীরের সঙ্গে জাইকার ছয়-সদস্যের প্রতিনিধি দলের সৌজন্য সাক্ষাতে এ প্রস্তাব দেওয়া হয়।

ইউজিসিতে মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জাইকা সদর দপ্তরের তাসুকু ইউসিদা, জাইকার বিশেষজ্ঞ দলের প্রধান উপদেষ্টা শোজি আকিহিরো, প্রকল্প সমন্বয়কারী কাটসুকি নাহো, জাইকা বিশেষজ্ঞ দলের সদস্য তাকেউচি তোমোনারি ও নাকানে নোজোমু এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফারজানা শারলিন উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, সভায় ইউজিসির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ মাকছুদুর রহমান ভূঁইয়া ও ইম্প্রুভিং কম্পিউটার অ্যান্ড সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং টারশিয়ারি এডুকেশন প্রকল্পের (আইসিএসইটিইপি) প্রকল্প পরিচালক প্রফেসর ড. মো. আমিনুল হক আকন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রফেসর আলমগীর বলেন, দেশে স্নাতকদের বাস্তব দক্ষতার ঘাটতি রয়েছে। ইউজিসি দেশে উচ্চশিক্ষার গুণগত পরিবর্তন এবং স্নাতকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে কাজ করছে। এ লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আউটকাম বেইজ ড এডুকেশন কারিকুলাম চালু করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, স্নাতকদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য সব বিশ্ববিদ্যালয়কে আন্ডার গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থীদের জন্য বাধ্যতামূলক ইন্টার্নশিপ চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমঝোতা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে স্নাতকদের দক্ষতা উন্নয়নে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও সার্টিফিকেট কোর্স করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

প্রফেসর আলমগীর শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোকে তাদের প্রয়োজন ইউজিসি ও দেশের বিশ্ববিদ্যালয়কে জানানো এবং বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নতুন স্নাতকদের বাজার উপযোগী করে গড়ে তুলতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। ইউজিসির চলমান আইসিএসইটিইপি প্রকল্পটি এই লক্ষ্য অর্জনে একসঙ্গে কাজ করবে বলেও তিনি জানান।

তাসুকু ইউসিদা বলেন, প্রকল্পের আওতায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতে দক্ষ প্রকৌশলী তৈরি, উন্নত প্রশিক্ষণ মডিউল ও কারিকুলাম প্রণয়নে ভূমিকা রাখতে চাই। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইসিটি খাতের উন্নয়নে তিনি ইউজিসির সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এবং জাইকা বাংলাদেশের আইটি ইঞ্জিনিয়ারদের দক্ষতা বাড়াতে যৌথভাবে ‘জাইকা-বিসিসি-বেসিস : কারিগরি সহযোগিতা প্রকল্প (টিসিপি)’ নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করে। 

সাড়ে ৩ বছর মেয়াদি প্রযুক্তিগত সহযোগিতার এই প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পকে এগিয়ে নিতে মানবসম্পদ উন্নয়নের জন্য একটি টেকসই কাঠামো তৈরি করা হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে আইসিটি বিষয়ে দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা হবে। 

সূত্র: Dhaka post

সর্বশেষ

জনপ্রিয়