সোমবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ || ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ০৬:৩২, ২৮ অক্টোবর ২০২২

১২ শতকে সপ্তাহে ২ মণ শিম তুলছেন আলমগীর

১২ শতকে সপ্তাহে ২ মণ শিম তুলছেন আলমগীর

যশোরের ঝিকরগাছার কৃষক আলমগীর হোসেন। অসময়ে অর্থাৎ গ্রীষ্মে তিনি ১২ শতক জমিতে শিম চাষ করেছেন। প্রতি সপ্তাহে খেত থেকে ২ মণ করে শিম তুলছেন। খরচ বাদে এবার অন্তত দেড় লাখ টাকা লাভ হতে পারে বলে জানান এই কৃষক। শীত মৌসুম আসার পূর্বে আগাম শিম চাষ করে ভালো ফলন পেয়েছেন যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কৃষকরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার গদখালী, বেনেয়ালি, শ্রীরামপুর, শিমুলিয়া, ছুটিপুর, জামালপুর, পানিসারা, কুলিয়া, বল্লা, বাঁকড়া, গঙ্গানন্দপুর, আটুলিয়া, ব্যাংদহ, গুলবাকপুর, শ্রীচন্দ্রপুর, দত্তপাড়া জুড়ে মাঠে এখন গ্রীষ্মকালীন শিমে ছড়াছড়ি। সরেজমিনে দেখা গেছে, খেতে শিমগাছে ফুল আর ফলে ভরা। গাছের চেহারা দেখে বোঝার উপায় নেই, এগুলো অসময়ে চাষ করা শিমের খেত।

কৃষকরা বলছেন, গত মে মাসে শিমের বীজ রোপণ করা হয়। এসব চারা রোপণ, সেচ দেওয়া, সার প্রয়োগ, নিড়ানি, কীটনাশক ও মাচা তৈরিসহ ৭৫ দিনে মোট ৮ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। গাছের বয়স ৬০ দিন হলে শিম উত্তোলন শুরু হয়। প্রতি সপ্তাহে খেত থেকে ২ মণ করে শিম তোলার উপযোগী হয়। অসময়ের কারণে এ সবজি বেশ চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। ১৩০ টাকা দরেও শিম বিক্রি হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ হোসেন পলাশ বলেন, ‘শিম শীতকালীন সবজি। এটা অসময় চাষ করলে বেশি দাম পাওয়া যায়। কৃষকরা বর্তমানে আগাম সবজি চাষে বেশি লাভবান হচ্ছেন।’

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়