• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

জাগ্রত জয়পুরহাট

মিশ্র ফল চাষে শাওনের বার্ষিক আয় ৩০ লাখ!

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০২২  

শখের বশে করা মিশ্র ফলের বাগান বাণিজ্যিক রূপ নিয়েছে। বাগানে ভিয়েতনামি মাল্টা, থাই পেয়ারা, বারোমাসি আম, ড্রাগন, আঙুর, কমলা, বেল, সরিফা, আতাসহ শতাধিত ফলের গাছ রয়েছে। সকল খরচ বাদে বছরে আয় হচ্ছে ২৫-৩০ লাখ টাকা। এই শতাধিক ফলের মিশ্র বাগান করে নিজেকে এক অন্য উচ্চতা নিয়ে গেছেন শাওন সরদার। নিজেকে পরিপক্ক কৃষি উদ্যোক্তা তৈরী করেছেন এবং অনুপ্রেরণা দিয়েছেন অরো অনেক উদ্যোক্তাদের।

জানা যায়, শাওন সরদার বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার ধোপাখালি ইউনিয়নের শিয়ালকাঠি গ্রামের বাসিন্দা। ২০১৩ সালে শখের বশে শুরু করা বাগানকে এখন বাণিজ্যিক রূপে রূপান্তরিত করেছেন। এতে কৃষি কাজের প্রতি তার মনোযোগ ও পরিশ্রম তাকে সফলতায় পৌছিয়েছে। তার বাগানে রয়েছে ভিয়েতনামি মাল্টা, থাই পেয়ারা, বারোমাসি আম, ড্রাগন, আঙুর, কমলা, বেল, সরিফা, আতাসহ শতাধিক প্রজাতির ফলের গাছ। বাগানের এক অংশে চায়না-থ্রি সিডলেস জাতের প্রায় ৫০০ লেবু গাছ রয়েছে। প্রতিটি গাছে থোকায় থোকায় ঝুঁলছে লেবু। এই লেবু স্বাদে ও ঘ্রানে অতুলনীয়। বাজারে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। মিশ্র ফলের বাগান থেকে বছরে তার প্রায় ২৫-৩০ লাখ টাকা আয় হয়।

উদ্যোক্তা শাওন সরদার বলেন, আমি ২০১৩ সালে শখ করে কয়েকটি গাছ দিয়ে বাগান শুরু করি। তারপর কৃষি বিভাগের বিভিন্ন প্রশিক্ষণে অংশগ্রহন করে অনেক কিছু জানতে পারি। বর্তমানে আমার ৭ একর জমিতে মিশ্র ফলের বাগান রয়েছে। বাগানে প্রায় শতাধিক প্রজাতির ফলের গাছ রয়েছে। যার পরিচর্যার জন্য ৫ জন শ্রমিক নিয়মিত কাজ করেন। আশা করছি বাগানের পরিধি আগামীতে আরো বড় করবো।

তিনি আরো বলেন, এখন বাগানে এভোকাডো, রামম্বুটান, পার্শিমনসহ কিছু বিদেশি ফলের গাছ পরীক্ষামূলক চাষের পর্যায়ে রয়েছে। ভালো ফল পেলে এই সব বিদেশি ফলেরও বাণিজ্যিক চাষ শুরু করবো। শাওনের প্রতিবেশী কামরুল হাসান বলেন, শাওন পড়াশোনা শেষ করে ফলের বাগান তৈরী করেন। তখন অনেকে উপহাস করলেও এখন তার বাগানের চিত্র দেখে তারাও অবাক হয়েছেন। আমি তার সফলতা দেখে ২ একর জমিতে ড্রাগন ফলের চাষ করছি। এবছর ২ লাখ টাকার ফল বিক্রি করেছি।

বাগেরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আজিজুল রহমান বলেন, শাওন সরদার কৃষি বিভাগের বিভিন্ন প্রশিক্ষণে অংশগ্রহন করে মিশ্র ফলের বাগান করে সফল হয়েছেন। আমরা তাকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও সব ধরনের সহযোগীতা করছি।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট