• বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

জাগ্রত জয়পুরহাট

কেন অপরিবর্তিত জয়পুরহাটের নাম

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ২৮ অক্টোবর ২০২১  

গাজীপুর জেলা হওয়ার কথা জয়দেবপুর নামে। হিন্দু নাম বলে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ জয়দেবপুর নাম বাদ দিয়ে গাজীপুর নাম দেয়। গাজীপুর নামে এ জেলায় মহকুমা, থানা বা ইউনিয়ন কোনটায় ছিল না।তবে এ নামে একটি অখ্যাত গ্রাম ছিল।
শরীয়তপুর জেলার পরিচিতি ছিল পূর্ব মাদারীপুর নামে। জিয়াউর রহমান একে শরীয়তপুর নাম দেন। সদর করা হয় পালং থানায়। জেলার নাম হওয়া উচিত ছিল পূর্ব মাদারীপুর বা পালং নামে।
মৌলভীবাজার জেলা ছিল দক্ষিণ সিলেট মহকুমা। এর সদর হওয়ার কথা ছিল শ্রীমঙ্গল। পাকিস্তান সরকার এ মহকুমার সদর করে মৌলভীবাজারে এবং নাম দেয় মৌলভীবাজার।হিন্দু নাম শ্রীমঙ্গল বর্জন করা হয়।
পঞ্চগড় নামে কোন থানা ছিল না এর নাম ছিল পচাগর। পচাগরকে সদর করে নাম বদলিয়ে পঞ্চগড় জেলা করা হয়।
পাকিস্তন সরকার শুধু মহকুমা অপরিবর্তিত রাখে জয়পুরহাট (তখনও থানা/মহকুমা হিসেবে পরিচিত) এবং ঝালকাঠী জেলাকে। মহকুমা থেকে জেলা হয় জয়পুরহাট ও ঝালকাঠি এবং তা সদর থানার নামেই।
ভাগ্যিস তারা জয়পাল রাজার নাম জানতো না, বিশেষ করে জয়পুরহাটের নাম। তা না হলে এ দুই জেলার নাম কায়েদনগর/ জিন্নাহ নগর/ আইউবপুর/ ইয়াহিয়াপুর হতো।
তবে ঝালকাঠি জেলা করেন টিক্কা খান।
জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট