• বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

জাগ্রত জয়পুরহাট

পৃথিবীতে ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য ষড়যন্ত্র চলছে-জেলা প্রশাসক

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০২১  

জয়পুরহাটের জেলা প্রশাসক, মো. শরীফুল ইসলাম বলেছেন, ‘পৃথিবীতে ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য ষড়যন্ত্র চলছে। তাই আপনারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীত নষ্ট করবেন না। আমরা আইন প্রয়োগ করতে চাই না। যদি আমাদেরকে বাধ্য করানো হয়, তাহলে করতেই হবে। জেলা প্রশাসন আপনাদের অফিস। কোন দল করেন- এটা আমার কাছে বিবেচ্য না। যে কোন সমস্যায়, জেলা প্রশাসকের দরজা খোলা আছে; আপনারা নির্দ্বিধায় সরাসরি যোগাযোগ করবেন।’ বুধবার বিকেল সাড়ে চারটায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার্থে সদর উপজেলার মাধাইনগর বাজারে ‘জয়পুরহাট কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম’ আয়োজিত সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘কারো কথায় কেউ বিভ্রান্ত হবেন না। এই বলে যে, ইসলাম তো শেষ হয়ে গেছে, চলো উমুকের বাড়িতে গিয়ে হামলা করি, হিন্দুর বাড়িতে গিয়ে আগুন দেই। এর কোন দরকার আছে কি? যার ইসলাম সম্পর্কে প্রকৃত জ্ঞান আছে, সে কখনও অন্য ধর্মের মানুষের বাড়িতে বা তাদের মন্দিরে, প্রতিমায় বা মূর্তিতে আক্রমণ করতে পারে না। এদেশের হিন্দুরা বা সংখ্যা লঘুরা তো সংখ্যায় কম। তারা কি আপনাদের কারো কোন ক্ষতি করেছে? আমার বিশ্বাস হয় না। আজকে কুমিল্লায় যে ঘটনার কথা বলা হচ্ছে, সেখানে একজন হিন্দু সুন্দর করে প্রতিমায় পূজা করার জন্য এতো সাজ-গোছ করে রাখলো। সে কি চাইবে, মুসলমানের ধর্মগ্রন্থ এনে তার পূজা নষ্ট করতে? এ কাজে একটি মুসলিম ছেলে, আধা পাগল, তাকে ব্যবহার করেছে কেউ। এই যে ঘটনা ঘটলো এতে কি লাভ হয়েছে।’

কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটির সদস্য সচিব নন্দলাল পার্শীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটির আহবায়ক মোহাম্মদ গোলাম হক্কানী। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মো. শরীফুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন পুুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা। সম্প্রতি সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আরিফুর রহমান রকেট, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এস.এম সোলায়মান আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন মণ্ডল, কমিউনিটি পুলিশিং জেলা সমন্বয় কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ খাজা সামছুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মোমিন আহম্মেদ চৌধুরী জিপি, অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল পিপি, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন প্রমুখ।

সম্প্রীতি সমাবেশের প্রধান বক্তা পুুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের ছাড় দেয়া হবেনা। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার স্থান নেই। হাজার বছর ধরে হিন্দু-মুসলিম, বৌদ্ধ-খ্রিষ্টানসহ নানা ধর্মাবলম্বীর দেশ বাংলাদেশ। আমরা সকলে মিলেমিশে ভাই ভাই হয়ে এই দেশে বাস করব। আমাদের বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের সম্প্রীতি বজায় আছে এবং তা অব্যাহত থাকবে। একটি কুচক্রি মহল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের লক্ষ্যে নানা অপকর্ম এবং অপপ্রচারের পায়তারা চালাচ্ছে। যারা দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা করবে তাদেরকে ছাড় দেওয়া হবে না। অন্য ধর্মের উপর আঘাত কখনোই ধর্মভীরুতা হতে পারে না, বরং তা ধর্মহীনতার পর্যায়ে পড়ে।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট