শুক্রবার   ১৪ জুন ২০২৪ || ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৬:২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

‘রাজশাহীতে ছাত্রলীগ আর মরুভূমিতে ফুলের বাগান একই কথা’ হুইপ স্বপন

‘রাজশাহীতে ছাত্রলীগ আর মরুভূমিতে ফুলের বাগান একই কথা’ হুইপ স্বপন

রাজশাহীতে ছাত্রলীগ করা আর মরুভূমিতে ফুলের বাগান করা একই কথা বলে মন্তব্য করেছেন জয়পুরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবাশ বাংলাদেশ মাঠে আয়োজিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ছাত্রলীগের ২৬তম সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, রাজশাহীতে ছাত্রলীগ করা আর মরুভূমিতে ফুলের বাগান করা একই কথা। এ সময় তিনি কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের উৎসর্গটা দেখে তাদের যোগ্যতাটা যেন বিবেচনা করা হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জয়পুরহাট-২ আসনের সাংসদ এবং আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, হলের ছাত্রদের আবাসন সমস্যাকে পুজি করে ছাত্র রাজনীতি করা ছাত্রলীগের কাজ না। আবাসিক হলে শিক্ষার্থীরা যেন সুন্দর পরিবেশে থাকতে পারে সেটা নিশ্চিত করতে হবে। মিছিল মিটিংয়ে সীমাবদ্ধ না থেকে আমাদের নতুনত্ব নিয়ে আসতে হবে। রাজনীতি মানে শুধু কয়েকটি পদ নয়। রাজনীতি মানে মননশীল চর্চা। যে রাজনীতি করে সে সমস্যা তৈরি করবে না, সে সমস্যা সমাধান করবে। তবে মাঝে মাঝে সংবাদপত্রে দেখি সিট বাণিজ্য, ভর্তি জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত থাকে যা আমার মনে কষ্ট দেয়। এখানে যারা রাবির নেতৃত্বে আসবে তারা যেন সিট বাণিজ্য দূর করে শিক্ষার্থীদের আবাসনের ব্যবস্থা করতে সহযোগিতা করে। এসময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসন সমস্যা সমাধানের জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করেন।

সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালি আসিফ ইনান বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সঙ্গে সংগ্রাম ওতোপ্রোতো ভাবেই জড়িত। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে মৌলবাদীদের আশ্রয় দেওয়া যাবে না। আজকের দিনে শিবিরের টর্চার থেকে শিক্ষার পরিবেশ সৃষ্টি করেছে ছাত্রলীগ। নেতৃত্ব কপালের লিখন। সবাইকে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা সম্ভব নয়। যে-ই নেতৃত্ব পাক না কেন আপনারা তাকে মেনে নিয়ে ক্যাম্পাসে একসঙ্গে কাজ করবেন বলে আশা করি।

এ সময় বর্তমান কমিটির বিলুপ্তি ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসাইন। সম্মেলনের সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া এবং সঞ্চালনা করেন সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু।

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ