সোমবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ || ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ০৫:০৪, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

আপডেট: ১৫:১১, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

জয়পুরহাটের ঐতিহাসিক দীঘির নাম

জয়পুরহাটের ঐতিহাসিক দীঘির নাম

জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলার নান্দাইল গ্রামে অবস্থিত এক ঐতিহাসিক দীঘির নাম নান্দাইল দিঘী (Nandail Dighi)। জয়পুরহাট শহর থেকে ১৯ কিলোমিটার পূর্বে জেলার সবচেয়ে বড় এই দিঘীটির অবস্থান।

প্রায় ১ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের নান্দাইল দিঘী ৫৯.৪ একর জায়গা জুড়ে বিস্তৃত। প্রচলিত আছে, ১৬১০ সালে মৌর্য্য বংশের সম্রাট নন্দলাল শুকনো মৌসুমে চাষাবাদের সুবিধা এবং খাবার পানির অভাব পূরণের উদ্দেশ্যে ঐতিহাসিক নান্দাইল দিঘী খনন করেন।

স্থানীয় জনগণ বিশ্বাস করেন, নান্দাইল দিঘী খনন করতে মাত্র এক রাত সময় লাগে। এক সময়ের উচুঁ নিচু টিলা ও ঘন বন সমৃদ্ধ দীঘির চারপাশে বর্তমানে বসতি গড়ে তোলা হয়েছে।

অনবদ্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অধিকারী নান্দাইল দিঘী বর্তমানে পিকনিক স্পট হিসেবে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়। আর শীতকালে এখানে প্রচুর অতিথি পাখির আগমন ঘটে। এছাড়া দিঘীর পাড়ে নান্দাইল কলেজ স্থাপন করা হয়েছে।

কিভাবে যাবেন

জয়পুরহাট শহর থেকে স্থানীয় পরিবহণ ব্যবস্থায় ১৯ কিলোমিটার পূর্বে কালাই থানার নান্দাইল গ্রামে অবস্থিত নান্দাইল দিঘি দেখতে যেতে পারবেন।

ঢাকা থেকে জয়পুরহাট: ঢাকার বিভিন্ন স্থান (গাবতলি, মহাখালী, আব্দুল্লাহপুর, শ্যামলী এবং কল্যাণপুর) হতে শাহ্‌ ফতেহ আলী পরিবহণ, সেইন্টমার্টিন ট্রাভেলস, শ্যামলী পরিবহন এন আর, এস আর ট্রাভেলস, হানিফ ইত্যাদি বাস জয়পুরহাটের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। এসি/ নন-এসি বাসের জনপ্রতি টিকেট মূল্য ৪০০ টাকা থেকে ৮০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। এছাড়া ঢাকার কমলাপুর কিংবা বিমানবন্দর রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে নীলসাগর, একতা এবং দ্রুতযান এক্সপ্রেসে জয়পুরহাট যাওয়া যায়।

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়