মঙ্গলবার   ০৫ মার্চ ২০২৪ || ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১৩:৩৮, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩

জয়পুরহাটে ৮৭৫ হেক্টর জমিতে এবার পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধার

জয়পুরহাটে ৮৭৫ হেক্টর জমিতে এবার পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধার
সংগৃহীত

খাদ্য উৎপাদনে উদ্বৃত্ত জেলা জয়পুরহাটে চলতি ২০২৩-২০২৪ নিবিড় ফসল উৎপাদন কর্মসূচির আওতায় ৮৭৫ হেক্টর জমিতে এবার শীতকালীন পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।  

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, পেঁয়াজ চাষে সরকারি ভাবে প্রণোদনা প্রদান করা এবং বাজারে পেঁয়াজের দাম ভালো পাওয়ায় জেলায় পেঁয়াজ চাষে দিন দিন আগ্রহী হয়ে উঠছেন কৃষকরা। জেলায় পেঁয়াজ চাষ সফল করতে  ব্যাপক কর্মসূিচ গ্রহণ করেছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ। খাদ্য উৎপাদনে উদ্বৃত্ত জেলা জয়পুরহাটে চলতি ২০২৩-২০২৪ নিবিড় ফসল উৎপাদন মৌসুমে ৮৭৫ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১০ হাজার ২৩৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ। উপজেলা ভিত্তিক পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে রয়েছে জয়পুরহাট সদর উপজেলায় ৩ শ ৫০ হেক্টর, পাঁচবিবিতে ৩ শ ৭০ হেক্টর, আক্কেলপুরে ৯০ হেক্টর, ক্ষেতলাল উপজেলায় ৪০ হেক্টর ও কালাই উপজেলায় ২৫ হেক্টর জমিতে।

রোপা আমন ধান কাটা-মাড়াই শেষে জয়পুরহাটের কৃষকরা পেঁয়াজ চাষের প্রস্তুতি গ্রহণ করে থাকেন। বাজারে পাতা পেঁয়াজের একটা আলাদা কদরের পাশাপাশি দামও ভালো পাওয়া যায়। সে কারণে জেলার অনেক কৃষক আগাম জাতের পেঁয়াজও চাষ করছেন বলে জানায় কৃষি বিভাগ। জেলায় পেঁয়াজ চাষ সফল করতে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করাসহ প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করছে কৃষি বিভাগ বলে জানান, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ রাহেলা পারভীন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়