সোমবার   ০৪ মার্চ ২০২৪ || ২০ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১১:২২, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পাঁচবিবিতে বাণিজ্যিকভাবে মৌচাষে সফল উদ্যোক্তারা

পাঁচবিবিতে বাণিজ্যিকভাবে মৌচাষে সফল উদ্যোক্তারা
সংগৃহীত

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার নঁওদা ও ধুরইল গ্রামে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা সরিষা ক্ষেতের পাশে মৌচাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন।

তাদের দেখে দিন দিন বেড়েই চলেছে মৌচাষ। এখানকার উৎপাদিত মধু ভেজালমুক্ত ও গুণগত মান ভালো হওয়ায় স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে চলে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে ও কোম্পানিতে। স্থানীয়রা বলছেন, মৌচাষের ফলে সরিষার ফলন বৃদ্ধি হয়।

মৌচাষিরা বলেন, আমরা মৌমাছি চাষ করি। নিজস্ব তত্ত্বাবধানে উৎপাদিত শতভাগ খাঁটি মধু আমরা নিজেরাই উৎপাদন করি ও মৌবক্স থেকে সংগ্রহ করি। প্রতিকেজি মধু ৩০০-৪০০ টাকা দরে বিক্রি করি। খুচরাভাবে ও বড় পাইকারের কাছে মধু বিক্রি করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন হাত বদল হয়ে আমাদের উৎপাদিত মধু দেশের বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানিতে যায়।

জয়পুরহাট বিসিক’র উপ-ব্যবস্থাপক লিটন চন্দ্র ঘোষ বলেন, জয়পুরহাটে বিভন্ন ফসলের পাশাপাশি প্রচুর জমিতে সরিষা চাষ হয়েছে। সরিষার ফলন বৃদ্ধিতে মৌচাষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। জয়পুরহাটে এ পর্যন্ত শতাধিক মৌচাষিকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

তাদের নিবন্ধন ও আইডি কার্ড সরবরাহ করা হয়েছে। এছাড়া ৩০ জন মৌচাষিকে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করা হয়েছে। এ বছর জয়পুরহাটে ৩০ মেট্রিক টন মধু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়