শনিবার   ১৩ এপ্রিল ২০২৪ || ২৯ চৈত্র ১৪৩০

প্রকাশিত: ১১:১৪, ৩ মার্চ ২০২৪

ক্ষেতলালের মাঠে সূর্যমুখীর হাসি

ক্ষেতলালের মাঠে সূর্যমুখীর হাসি
সংগৃহীত

দূর থেকে মনে হয় বিশাল আকারের হলুদ গালিচা, তবে কাছে গেলে দেখা মিলছে হাজারো সূর্যমুখীর। বাতাসে দোল খেয়ে ফুলগুলো আমন্ত্রণ জানায় সৌন্দর্য উপভোগের। ভোরের সূর্য উঁকি দিতেই আড়মোড়া ভেঙে এই সূর্যমুখী ফুলেরা জেগে ওঠে। আর সেই হলুদ ফুলের হাসিতে নিজেদের বৈকালিক সময় কাটাতে ছুটে আসছেন প্রকৃতিপ্রেমীরা।

মনোমুগ্ধকর এই দৃশ্যটির দেখা মিলেছে জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার বড়তারা ইউনিয়নের নওটিকা গ্রামে। বীজ উৎপাদন ও সংগ্রহের জন্য এই সূর্যমুখী ফুলের চাষ করে বাজিমাত করেছেন ওই গ্রামের কৃষক দিলীপ চন্দ্র সরকার। তিনি প্রায় এক একর ক্ষেতজুড়ে সূর্যমুখী ফুলের চাষ করে এখন লাভের স্বপ্ন দেখছেন।

ক্ষেতলাল উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা গেছে, আধুনিক প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে রাজশাহী বিভাগের কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বীজ উৎপাদন ও সংগ্রহের জন্য চলতি মৌসুমে উপজেলার নওটিকা গ্রামের কৃষক দিলীপ চন্দ্র সরকার ও রুপকুমার চন্দ্র বর্মনকে পরামর্শ দিয়ে প্রায় সাড়ে পাঁচ বিঘা পরিমাণ জমিতে সূর্যমুখী রোপনের জন্য বীজ দেওয়া হয়। (গত ২০২৩ সালের ১১ নভেম্বর) বপন করা হয়েছে কাভেরীচম্প জাতের কয়েক হাজার সূর্যমুখীর বীজ। উপজেলা কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে বীজ দেওয়ার পাশাপাশি সার ও কীটনাশক দেওয়া হয়েছে। রোপনকৃত সূর্যমুখী বীজের প্রায় প্রতিটি গাছেই ফুল ফুটেছে। খুব দ্রুত এই ফুল থেকে বীজ সংগ্রহ করা সম্ভব হবে। তারা সার্বিকভাবে নজরদারি করছেন। 

দিনভর এই সূর্যমুখীর ক্ষেতে আসতেছে নানান বয়সী মানুষ। সূর্যমুখী ফুলের এ ক্ষেতটি এখন সৌন্দর্যপ্রেমীদের কাছে দর্শনীয় স্থানের মতো। কেউ বন্ধুদের সঙ্গে আসছেন, কেউ বা আসছেন পরিবার পরিজন নিয়ে। সুখস্মৃতি ধরে রাখতে নানা ভঙ্গিতে মুঠোফোন কিংবা ক্যামেরায় ছবি তুলছেন তারা। দৃষ্টিকাড়া ফুলের মধ্যে ছবি তুলতে সবারই ভালো লাগে তাইতো এখানে ছুটে আসছেন সব বয়সের নারী পুরুষ। পাশাপাশি  সরকারি কর্মকর্তারাও ছুটির দিনে পরিবার-পরিজন নিয়ে সেখানে ছুটে যাচ্ছেন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ

শিরোনাম

আয়ারল্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দনসুইজারল্যান্ডে স্কলারশিপ পাওয়ার উপায় কিঈদের দিন ৩ হাসপাতাল পরিদর্শন স্বাস্থ্যমন্ত্রীরঈদের জামাতে নামাজরত অবস্থায় ভাইয়ের মৃত্যু, খবর শুনে মারা গেলেন বোনওসদরঘাটে শেষ বিল্লালের পুরো পরিবারবৈসাবি উৎসবের আমেজে ভাসছে ৩ পার্বত্য জেলাব্যাংক ডাকাতি থেকে বাঁচতে জয়পুরহাটে কড়া নিরাপত্তাএলাকায় মসজিদ ছিল না, জমি কিনে মসজিদ বানালেন সবজি বিক্রেতাবায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতে মুসল্লিদের ঢলআজ ঈদ, মুসলমানদের ঘরে আনন্দের বন্যাভারতে পাচারের সময় কোটি টাকা মূল্যের সাপের বিষ উদ্ধারজাহাজে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন জিম্মি নাবিকরা