• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৮ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

জাগ্রত জয়পুরহাট

‘স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর জান্নাত’ এই কথার ভিত্তি কী?

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০২২  

স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর জান্নাত—এই কথাকে অনেকে হাদিসে হিসেবে পেশ করে থাকেন। যার আরবি হলো— الجنة تحت أقدام الأزواج অথচ হুবহু এ শব্দ-বাক্যে কোনো হাদিস পাওয়া যায় না। সুতরাং এটিকে হাদিস বলা যাবে না।

তবে কিছু বর্ণনায় এর অনুরূপ মর্মার্থ পাওয়া যায়। যেমন এক হাদিসে এসেছে— একবার এক নারী সাহাবি কোনো প্রয়োজনে রাসুলের (স.) কাছে এলেন। যাওয়ার সময় রাসুলুল্লাহ (স.) তাকে জিজ্ঞেস করলেন, তোমার কি স্বামী আছে? তিনি বললেন, জি আছে। নবীজি (স.) বললেন, তার সঙ্গে তোমার আচরণ কেমন? সে বলল, আমি যথাসাধ্য তার সঙ্গে ভালো আচরণ করার চেষ্টা করি। তখন নবীজি বললেন, فانظري أين أنت منه، فإنما هو جنتك ونارك হ্যাঁ, তার সঙ্গে তোমার আচরণের বিষয়ে সজাগ থাকো, কারণ সে তোমার জান্নাত বা তোমার জাহান্নাম। (মুআত্তা মালেক: ৯৫২; মুসনাদে আহমদ: ৪/৩৪১ নম্বর: ১৯০০৩; মুসতাদরাকে হাকেম: ২৭৬৯; সুনানে কুবরা, বায়হাকি: ১৪৭০৬)

মনে রাখতে হবে, নারী ছাড়া পুরুষের জীবন যেমন অর্থহীন, একইভাবে পুরুষ ছাড়া নারীর জীবনও অপরিপূর্ণ। এক কথায় একে অন্যের পরিপূরক। ইরশাদ হয়েছে, ‘তারা তোমাদের আবরণস্বরূপ আর তোমরা তাদের আবরণ।’ (সুরা বাকারা: ১৮৭)। একইভাবে একের ওপর অন্যের হক রয়েছে বলেও কোরআন-হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘আর স্বামীদের যেমন তাদের (স্ত্রীদের) ওপর ন্যায়সঙ্গত হক রয়েছে, তেমনি তাদেরও হক রয়েছে স্বামীদের ওপর।’ (সুরা বাকারা: ২২৯)

কিন্তু ‘স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর জান্নাত’ এমন কোনো বাক্য নবীজি বলেছেন বলে যেহেতু প্রমাণ নেই, হাদিস হিসেবে এ ধরণের কথা প্রচার করা থেকে সাবধান হওয়া উচিত। একইসঙ্গে গুনাহের কাজ নয়—এমন বিষয়ে স্বামীর আনুগত্য করাও জরুরি। কেননা আল্লাহ তাআলা পবিত্র কোরআনে ইরশাদ করেছেন, ‘সাধ্বী স্ত্রীরা হয় অনুগত এবং আল্লাহ যা হেফাজতযোগ্য করে দিয়েছেন, লোকচক্ষুর অন্তরালে তার হেফাজত করে’ (সুরা নিসা: ৩৪)।

নবীজি (স.) বলেছেন, ‘যে নারী পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে, রোজা রাখে, নিজ চরিত্র হেফাজত করে ও স্বামীর আনুগত্য করে, তাকে বলা হবে, যে দরজা দিয়ে ইচ্ছে জান্নাতে প্রবেশ করো।’ (সহিহ ইবনে হিব্বান: ৪১৬৩; মুসনাদে আহমদ: ১৬৬১)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নবীজির নামে ভুল কথা প্রচার করা থেকে সাবধান হওয়ার তাওফিক দান করুন। জীবনের প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে কোরআন সুন্নাহর অনুগামী হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট