• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৮ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

জাগ্রত জয়পুরহাট

হায়েজ অবস্থায় স্ত্রী সহবাস করলে যে কাফফারা দিতে হবে

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০২৩  

জেনেশুনে হায়েজ অবস্থায় স্ত্রী সহবাস করা হারাম। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন, ‘তারা আপনাকে হাফেজ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে, আপনি বলে দিন, তা অপবিত্রতা। অতএব তোমরা হায়েজের সময় স্ত্রীদের থেকে পৃথক থাকো এবং তাদের নিকটবর্তী হয়ো না; যতক্ষণ না তারা পবিত্র হয়।’ (সুরা বাকারা: ২২২)

সুতরাং কেউ ইচ্ছাকৃতভাবে আল্লাহর এই নির্দেশ অমান্য করলে তার কর্তব্য হবে আল্লাহ তাআলার কাছে খালেস নিয়তে তাওবা-ইস্তেগফার করা। একইসঙ্গে এক দিনার বা অর্ধ দিনার গরিব-মিসকিনকে দান করা। হায়েজের শুরুর দিকে সহবাস করলে এক দিনার আর শেষ দিকে হলে অর্ধ দিনার সদকা করার কথা কোনো কোনো হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। তাই এক্ষেত্রে তাওবা-ইস্তেগফারের পাশাপাশি উপরোক্ত নিয়মে সদকা করা উত্তম হবে।

দিনার হচ্ছে একটি স্বর্ণমুদ্রা। যা বর্তমান হিসেবে ৪.৩৭৪ গ্রাম সমপরিমাণ স্বর্ণ। সুতরাং ওই পরিমাণ স্বর্ণ সদকা করা অথবা বর্তমান বাজার অনুযায়ী দাম হিসেব করে ওই টাকা সদকা করলেও হবে। আর শরয়ি বিধান না জেনে অজ্ঞতাবশত বা ভুলক্রমে হায়েজ অবস্থায় স্ত্রী সহবাস করে ফেললে তওবা করাই যথেষ্ট হবে। 

(আবু দাউদ: ২৬৪; ইরওয়া: ১৯৭; মেশকাত: ৫৫৩; মুসলিম: ১২৬; ইবনুল উসায়মিন, আশ-শারহুল মুমতি: ১/৫৭১; জামে তিরমিজি: ১৩৭; আহমদ: ২২০১; বাজলুল মাজহুদ: ২/২৭৮; আলবাহরুর রায়েক: ১/১৯৭; ফাতহুল কাদির: ১/১৪৭; আদ্দুররুল মুখতার: ১/২৯৮) আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে প্রত্যেক হারাম কাজ থেকে দূরে থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট