• সোমবার   ০২ আগস্ট ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

জাগ্রত জয়পুরহাট

সুযোগ পেয়েও আহত ব্যাটসম্যানকে আউট না করার দৃষ্টান্ত

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০২১  

ক্রিকেটীয় সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করল জো রুট এবং তার দল ইয়র্কশায়ার। রান নেয়ার সময় ক্রিজে আহতে হয়ে পড়ে যাওয়া ব্যাটসম্যানকে আউট না করায় অসাধারণ স্পোর্টসম্যানশিপ দেখলো বিশ্ব। 

রান নেওয়ার সময় ল্যাঙ্কশায়ার ব্যাটসম্যান স্টিভেন ক্রাফট আহত হয়ে ক্রিজে পড়ে গেলেও ইয়র্কশায়ার রান আউট করতে চায়নি। ওয়েলকে আউট না করতে সতীর্থদের নির্দেশ দেন অধিনায়ক রুট। যদিও এই সিদ্ধান্ত পরে বুমেরাং হয়েছে। কারণ সেই আহত স্টিভেন ক্রাফটই জিতিয়ে দেন ল্যাঙ্কাশায়ারকে।

ইয়র্কশায়ারের রানের রান চেজ করছিল ল্যাঙ্কশায়ার। ব্যাটসম্যান লুক ওয়েল মিড অফে হালকা করে বল ঠেলে রান নিতে দৌড়েছিলেন। সেই সময়েই নন স্ট্রাইকিং এন্ডের ব্যাটসম্যান ক্রাফট দৌড় দিতে গিয়ে বাম পায়ে চোট পান। তিনি প্রচণ্ড ব্যথায় চিৎকার করে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এমনটা দেখে অধিনায়ক জো রুট সতীর্থদের রান আউট করতে বারণ করেন। 

ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে এমন সিদ্ধান্ত নেন জো রুট। ল্যাঙ্কশায়ারের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৮ বলে ১৭ রান। হাতে ছিল ৫ উইকেট।

রুটরা আউট না করার সিদ্ধান্ত নেয়ার পরেই আম্পায়ার ডেড বলের ইঙ্গিত দেন। ফিজিও ছুটে এসে ক্রাফটকে ফিট করার কাজে লেগে পড়েন। 

ম্যাচের পরে ল্যাঙ্কশায়ার প্রতিপক্ষ ইয়র্কশায়ারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে বলেছে, তারা সহজেই ব্যাটসম্যানকে আউট করতে পারত। তবে তা না করায় ওদের প্রশংসা প্রাপ্য। 

রুট বলেন, প্রথমে মনে হয়েছিল, ক্রাফটের ইনজুরি বেশ সিরিয়াস। তবে শেষ পর্যন্ত সেটা যে হয়নি এটাই স্বস্তির। আমার সিদ্ধান্ত নিয়ে অনেক যুক্তি তর্ক হবে। তবে আমি এটাই ঠিক মনে করেছি।

ম্যাচে ফিরতে ইয়র্কশায়ারের দ্রুত উইকেট তুলতেই হতো। তবে সেই আউটের প্রলোভন উপেক্ষা করে জো রুট বিশ্বক্রিকেটে অন্যন্য এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন। 

যদিও ধারাভাষ্যকার হিসেবে থাকা সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার মার্ক বাউচার রুটের সিদ্ধান্তে একমত হতে পারেননি। তার মতে রুটের সিদ্ধান্ত ‘অদ্ভুত’। 

চোট পাওয়া ক্রাফটই ল্যাঙ্কশায়ারকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন। নিজে অপরাজিত থাকেন ২৬ রানে। ইয়র্কশায়ারের ১২৬ রান ৫ উইকেট হাতে রেখেই চেজ করে ফেলে ল্যাঙ্কশায়ার।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট