মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪ || ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ১০:০৫, ১ এপ্রিল ২০২৪

ধোনির শেষের ঝড়েও হারল চেন্নাই

ধোনির শেষের ঝড়েও হারল চেন্নাই
সংগৃহীত

শেষ ৬ বলে প্রয়োজন ছিল ৪১ রান। ব্যাট হাতে তাণ্ডব চালিয়ে দুই চার ও দুই ছক্কায় ধোনি নিতে পেরেছেন ২০ রান। তাতেও কোনো লাভ হয়নি। শেষ পর্যন্ত দিল্লি ক্যাপিটালসের কাছে ২০ রানে হেরেছে চেন্নাই সুপার কিংস। আসরে এই প্রথম হার দেখলেন ধোনি-মুস্তাফিজরা। আসরে আগের দুই ম্যাচে দুর্দান্ত জয় পেয়েছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

রোববার রাতে বিশাখাপত্তনমে টস জিতে আগে ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান করে দিল্লি ক্যাপিটালস। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রানে থেমে যায় রুতুরাজ গায়কোয়াড়ের দল। দিল্লির জয় ২০ রানে।

চলমান আইপিএলে চেন্নাইকে হারিয়ে প্রথম জয়ের দেখা পেল দিল্লি। আগের দুই ম্যাচে পাঞ্জাব কিংস এবং রাজস্থান রয়্যালসের কাছে হেরেছিল তারা।

এই ম্যাচটি হারের পেছনে বল হাতে মুস্তাফিজদের খরুচে বোলিং যেমন দায়ী, তেমনি ব্যাট হাতে শুরুতেই নিউজিল্যান্ড ব্যাটার রাচিন রবিন্দ্রর বল নষ্ট করাটা মূল দায়ী। রান তাড়া করতে নেমে ১২ বল খেলে রবিন্দ্র করেন মাত্র ২ রান। টি-২০তে শুরুর পাওয়ার প্লেতে যেখানে ১২ বলে আসার কথা ২০-৩০ রান, সেখানে ২ রানের ফলে শুরুতেই পিছিয়ে পড়ে চেন্নাই।

আবার শেষ দিকে মহেন্দ্র সিং ধোনি যখন চড়াও হলেন দিল্লির বোলারদের ওপর, তখন অন্যপ্রান্তে স্লো ব্যাটিং করছিলেন রবিন্দ্র জাদেজা। ১৭ বলে ওই মুহূর্তে জাদেজার মত ব্যাটারের কাছ থেকে আরো বেশি আক্রমণাত্মক ব্যাটিং প্রত্যাশা করেছিলো সবাই। কিন্তু তিনি করেছেন মাত্র ২১ রান। যেটাতে ২টি বাউন্ডারি ছাড়া আর কিছু ছিল না। আবার শিবাম দুবে করেছিলেন ১৭ বলে ১৮ রান। শেষ পর্যন্ত বল নষ্ট করার মূল্য দিতে হলো তাদের।

১৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই অধিনায়ক ঋুতুরাজ গায়কোয়াড় (২ বলে ১ রান) আউট হয়ে যান। এরপর রাচিন রবিন্দ্র তো ১২ বল নষ্ট করলেন। তিনিও আউট হলেন খলিল আহমেদের হাতে। এরপর আজিঙ্কা রাহানে এবং ড্যারিল মিচেল চেষ্টা করেন ঘুরে দাঁড়ানোর। দু‘জন মিলে ৬৮ রানের জুটি গড়েন।

৩০ বলে ৪৫ রান করে আউট হয়ে যান আজিঙ্কা রাহানে। অন্যদিকে ২৬ বলে ৩৪ রান করে বিদায় নেন ড্যারিল মিচেল। ১৭ বলে ১৮ রান করেন শিবাদ দুবে। সামির রিজভি তো কোনো রানই করতে পারেননি। ২১ রান করে জাদেজা এবং ৩৭ রান করে অপরাজিত থাকেন ধোনি।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়