মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০২৪ || ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত : ১১:৩৩, ২৩ জুন ২০২৪

খাবার বিক্রি করে জীবন চলছে সালমানের নায়িকার, থাকেন টিনের ঘরে

খাবার বিক্রি করে জীবন চলছে সালমানের নায়িকার, থাকেন টিনের ঘরে
সংগৃহীত

বলিউডের তারকাদের জীবনযাত্রা দেখে তাদের ঝলমলে জীবনের আঁচ করা যায়। অনেক তারকা শূন্য হাতে শুরু করে আজ কোটিপতি। তবে বলিউডের সেই আলো ঝল মলে জীবন সবার হয় না। সালমান খানের বিপরীতে অভিষেক হয়েছিল পূজা দাদওয়াল। তবে তিনি সময়ের সঙ্গে হারিয়ে গিয়েছেন বলিউড থেকে।

ভাততীয় সংবাদমাধ্যম ডিএনএ এর প্রতিবেদন থেকে জানা যায় তার জীবনের নানান খবর। তার ক্যারিয়ারে সেভাবে কোনো হিট সিনেমা নেই। তার সঙ্গে পারিবারিক ঝামেলা এবং শারীরিক অসুস্থতায় তার ক্যারিয়ারে ইতিবাচক কিছু আনতে পারেনি। পূজা দাদওয়াল এখন প্রায় ভুলে যাওয়া এক নাম। বর্তমানে খাবারের ব্যবসা করেই সংসার চলে পূজার।

তবে এই অভিনেত্রীর ক্যারিয়ারের শুরুটা ছিল সুন্দর। ১৯৭৭ সালের ৫ জানুয়ারি মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ে জন্ম পূজার। ছোটবেলা থেকে সিনেমা দেখতে ভালোবাসতেন তিনি। ছোট থেকেই অভিনেত্রী হতে চাইতেন তিনি। তাই স্কুলজীবন থেকেই অভিনয়ের প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন তিনি। প্রশিক্ষণ চলাকালে একটি হিন্দি সিনেমাতে অভিনয়ের প্রস্তাব পান তিনি। ১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘বীরগতি’ সিনেমাতে সালমান খানের বিপরীতে অভিনয়ের সুযোগ পান পূজা। মাত্র ১৭ বছর বয়সে বড় পর্দায় পা রাখেন তিনি। কিন্তু বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে সিনেমাটি। তবে সালমানের নায়িকা হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন বলে বলি ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের পরিচিতি গড়ে তোলেন পূজা। ‘হিন্দুস্থান’, ‘সিন্দুর সৌগন্ধ’, ‘ইন্তেকাম’-এর মতো একাধিক হিন্দি সিনেমাতে অভিনয় করেন তিনি।

‘আশিকি’ ও ‘ঘরানা’র মতো দুটি জনপ্রিয় ধারাবাহিকের অংশ ছিলেন তিনি। এরপর বিয়ে করে স্বামীর সঙ্গে মুম্বাই ছেড়ে গোয়া চলে যান পূজা। গোয়ায় একটি ক্যাসিনো চালাতেন তার স্বামী। বিয়ের পর ক্যাসিনোর ব্যবসাই সামলাতে শুরু করেন পূজা। কিন্তু তার স্থায়িত্বও খুব বেশি দিনের নয়।

২০১৮ সালে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন পূজা। স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে জানা যায় যে যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু পূজার পাশে তার স্বামী ছিল না। পূজাকে মৃত্যুশয্যায় একা ফেলে চলে যান তিনি। পরে ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রকাশিত হওয়ার পর পূজার অসুস্থতার কথা ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওটিতে প্রথম সিনেমার নায়ক সালমান খানের কাছে সাহায্যের আবেদন করতে দেখা যায় পূজাকে। অসুস্থতার খবর পেয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন সালমান। ছয় মাস চিকিৎসা চলার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন পূজা। মুম্বাইয়ে ফিরে গিয়ে নিজের জীবন নতুন করে শুরু করেন তিনি।

২০২০ সালে একটি পাঞ্জাবি সিনেমাতে অভিনয়ের সুযোগ পান পূজা। কিন্তু এই সিনেমাটিও বক্স অফিসে তেমন ব্যবসা করতে পারেনি। এক পুরোনো সাক্ষাৎকারে পূজা জানিয়েছিলেন, তার পুরোনো বন্ধু রাজেন্দ্র ব্যবসা করার পরিকল্পনা দেন পূজাকে। বন্ধুর পরামর্শ অনুযায়ী হোম ডেলিভারির ব্যবসা শুরু করেন পূজা। বর্তমানে মুম্বাইয়ে খাবারের ব্যবসা করেন তিনি, থাকে একটি একচালার ঘরে।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ