শুক্রবার   ১৪ জুন ২০২৪ || ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৫:১৬, ২৯ অক্টোবর ২০২৩

আপডেট: ১৫:৩০, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

সরকারি খরচে ৩ লাখ ৬৫ হাজার ২২৫ মামলার আইনি সহায়তা

সরকারি খরচে ৩ লাখ ৬৫ হাজার ২২৫ মামলার আইনি সহায়তা

জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থার (লিগ্যাল এইড) মাধ্যমে সরকারি খরচে ৩ লাখ ৬৫ হাজার ২২৫টি মামলায় আইনি সহায়তা দেওয়া হয়েছে। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের অধীনে জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, আইনি সহায়তা প্রদানকৃত মামলার সংখ্যা ৩ লাখ ৬৫ হাজার ২২৫টি। এর মধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৫৫টি মামলা। প্রি ও পোস্ট-কেইস মামলা বা বিরোধে ক্ষতিগ্রস্ত পক্ষকে ১৫৩ কোটি ৯৯ লাখ ৫১ হাজার ৯৪৮ টাকা আদায় করে দিয়েছে সংস্থাটি।

এতে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড অফিসের মাধ্যমে আইনি সহায়তা দেওয়া মামলার সংখ্যা ৩ হাজার ১৬টি। এর মধ্যে নিস্পত্তি হয়েছে ২ হাজার ২১৫টি। ঢাকা ও চট্টগ্রাম শ্রমিক আইনগত সহায়তা সেলে আইনি সহায়তা প্রদানকৃত মামলার সংখ্যা ৪ হাজার ২৯০টি। এর মধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে ৫৫৩ টি মামলা।

গত ২৮ এপ্রিল দেশব্যাপী আইনগত সহায়তা দিবস পালিত হয়। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়- ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ বিনামূল্যে আইনি সেবার দ্বার উন্মোচন’।

‘জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস- ২০২৩’ উদযাপন উপলক্ষে আইন ও বিচার বিভাগ এবং জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। ২০১৬ সাল থেকে দিবসটি পালিত হয়ে আসছে।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার দেশে আর্থিকভাবে অসচ্ছল, অসমর্থ বিচারপ্রার্থী জনগণকে সরকারি খরচে আইনি সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ‘আইনগত সহায়তা প্রদান আইন-২০০০’ প্রণয়ন করে। ২০০০ সালে তৎকালীন শাসন আমলে আইনটি প্রণয়ন করে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার। তারপরের সরকারগুলো আইনটি কার্যকরে উল্লেখযোগ্য কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সরকার গঠনের পর আওয়ামী লীগ দরিদ্র ও অসচ্ছল জনগণের বিচারপ্রাপ্তি নিশ্চিতে আইনটি কার্যকরে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে। দেশের সব আদালত, সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টে ‘লিগ্যাল এইড’ এখন দরিদ্র ও অসহায় বিচারপ্রার্থীদের নিকট ভরসাস্থল হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে।

সুত্র- ডেইলি-বাংলাদেশ

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ