সোমবার   ২২ জুলাই ২০২৪ || ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত : ১১:০৪, ২০ জুন ২০২৪

আপডেট: ১১:৩৫, ২০ জুন ২০২৪

জয়পুরহাটে ঈদ আনন্দে মেতে উঠেছে সাধারণ মানুষ

জয়পুরহাটে ঈদ আনন্দে মেতে উঠেছে সাধারণ মানুষ
সংগৃহীত

ঈদ মানেই আনন্দ। ঈদ মানেই ভিন্নতা। ঈদের সেই আনন্দ উপভোগ করতে সব বয়সের আনন্দ পিপাসু মানুষের পদভারে মুখরিত এখন জয়পুরহাটের একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র শিশুউদ্যান। 

ঈদের নামাজ শেষে করেই শিশুরা ছোটে আনন্দ ভ্রমণে অনেকটা শান্ত প্রকৃতির মেঘলা আকাশে ঈদের  দিন কোরবানী নিয়ে কিছুটা ব্যস্ততা থাকলেও পরের দিন থেকেই জেলার  বিনোদন কেন্দ্রে শিশুদের আনন্দ ভ্রমণের যেন কমতি নেই দর্শনার্থীদের। ভেদাভেদ ভুলে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগিতেই ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা।  
জয়পুরহাট জেলা শহর থেকে ১ কিলোমিটার দূরত্বে বুলুপাড়া এলাকায় অবস্থিত শিশু উদ্যান নামের এ শিশু বিনোদন কেন্দ্র। বিনোদনের মাধ্যমে শিশুদের শিক্ষা জীবন গড়ে তোলা মূল লক্ষ্য নিয়ে ২৫ একর জমির ওপর বেসরকারি উদ্যোগে এটি নির্মিত হয় ২০০৫ সালে। খেলা-ধূলার বিভিন্ন রাইডের পাশাপাশি শিশুদের মনোরঞ্জনে উদ্যানটি নানাভাবে সাজানো হলেও নিরিবিলি পরিবেশ আকৃষ্ট করে বড়দেরও। ২৫টি রাইডের পাশাপাশি এবারের বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে স্পিট বোর্ড, রকি হর্স ও কুমির বোট।

এখানে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে শিশুদের নিয়ে বেড়াতে আসেন সব বয়সের মানুষ। অন্যান্য সময় তুলনামূলক দর্শনার্থী কিছুটা কম থাকলেও ঈদের প্রথম , দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিনে দর্শনার্থীদের পদচারনায় শিশু উদ্যোন ফিরে পায় যেন নতুন রুপ। ঈদের দিন থেকে এখানে দর্শনার্থীদের ভিড় শুরু হয় বাড়তি আনন্দ উপভোগ করার জন্য। উদ্যানে বেড়াতে আসা শিশু দর্শনার্থীরা খুশি বলে জানান শিশু আমরিন, ফাইয়াজ ইসলাম, সোনিয়া আকতার, সজিব, শামিম, পলাশ ওশিহাব ইসলাম।   

বিনোদনের মাধ্যমে শিশুদের শিক্ষা জীবন গড়ে তোলার প্রাধান্য দিয়ে এবিনোদন কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হয়েছে বলে জানালেন  উদ্যানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল ইসলাম চৌধুরী প্রিন্স। প্রবেশ টিকিট ছোটদের ৫০ টাকা, বড়দের ১০০ টাকা এবং রাইড গুলোতে ওঠার ফি  ২০ থেকে ৩০ টাকা  পর্যন্ত রয়েছে। দর্শকদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে পুরো উদ্যান জুড়ে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানো হয়েছে। দূরের ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য গাড়ি পার্কিং সুবিধা রয়েছে। বাস ১ শ, ভটভটি ও মাইক্রো ৫০ টাকা, মোটর সাইকেল ২০ ও

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ