সোমবার   ২২ জুলাই ২০২৪ || ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত : ১৩:৪৭, ৯ জুলাই ২০২৪

বাজারে এল সিএনজিচালিত মোটরসাইকেল

বাজারে এল সিএনজিচালিত মোটরসাইকেল
সংগৃহীত

শহরের যানজটে মোটরসাইকেল যেন এক স্বস্তির নাম। কোনো জায়গায় দ্রুত যেতে গেলে, মোটরসাইকেলের বিকল্পই নেই। তবে যদি এমন মোটরসাইকেল বাজারে আসে যা দ্রুতগতির পাশাপাশি বাঁচাবে পকেটের কাঁড়ি কাঁড়ি টাকাও তাহলে কেমন হয়?

এবার তেমনই এক মোটরসাইকেল বাজারে এসেছে। বিশ্বের প্রথম এই সিএনজিচালিত মোটরসাইকেলে প্রতি কিলোমিটারে খরচ হবে মাত্র এক টাকার কিছু বেশি।

দামেও সস্তা আবার মাইলেজও বেশি, বাইকপ্রেমী পছন্দ এমনই মোটরসাইকেল। তাই বাইকপ্রেমীদের জন্য বাজারে এসেছে বিশ্বের প্রথম সিএনজিচালিত মোটরসাইকেল ফ্রিডম-১২৫। ভারতের বাজাজ এই মোটরসাইকেল বাজারে এনেছে। দাম শুরু হয়েছে ৯৫ হাজার রুপি বা ১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা থেকে। বিভিন্ন প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, বাইকের মাইলেজ ৩৩০ কিলোমিটার।

বাজাজের ফ্রিডম-১২৫ এ দু’ধরনের জ্বালানি আছে। সিএনজির পাশাপাশি রয়েছে পেট্রল ফুয়েল ট্যাংক। বাইকের সিটের নিচে রয়েছে ২ লিটার সিএনজি সিলিন্ডার। আর ঠিক তার সামনেই রয়েছে ২ লিটার পেট্রল ফুয়েল ট্যাংক। কোম্পানির দাবি অনুযায়ী, প্রতি কেজি সিএনজিতে ১০২ কিলোমিটার মাইলেজ পাওয়া যাবে। আর প্রতি লিটার তেলে পাওয়া যাবে ৬০ কিলোমিটার মাইলেজ।

বাজাজের দাবি অনুযায়ী, সিএনজি এবং পেট্রল মিলিয়ে মাইলেজ পাওয়া যাবে ৩২৪ কিলোমিটার। যদিও বাস্তবে এটা কমবেশি হতে পারে। তবে মাইলেজের দিক থেকে বাজাজ ১২৫ অন্য মোটরসাইকেলকে পেছনে ফেলবে, এমনটা বলাই যায়। এদিকে সিটের নিচে সিলিন্ডার থাকায় নিরাপত্তা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। কিন্তু বাজাজের দাবি, ১১ বার সেফটি টেস্টের পরই বাইকটি বাজারে লঞ্চ করা হয়েছে।

শুধু তাই নয় গাড়ির মতো এই মোটরসাইকেলেরও ক্র্যাশ টেস্ট করা হয়েছে। এর মাধ্যমে সিএনজি সিলিন্ডারে কোনো দুর্ঘটনা ঘটবে কি না তা খতিয়ে দেখা হয়। আবার সিএনজি সিলিন্ডার ও ফুয়েল ট্যাংক থাকায় মোটরসাইকেলের ওজন কেমন হবে, তা নিয়েও আগ্রহের শেষ নেই। কিন্তু কোম্পানির দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ফ্রিডম ১২৫-এর কার্ব ওয়েট ১৪৯ কেজি। ১৭০ মিলিমিটার গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স এবং ৭৮৫ মিলিমিটার চওড়া সিট রয়েছে মোটরসাইকেলে। সিটের উচ্চতা ৮২৫ মিলিমিটার।

এত কিছুর পাশাপাশি আরও অত্যাধুনিক কিছু ফিচার রয়েছে ফ্রিডম-১২৫ এ। এই মোটরসাইকেলে ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট কনসোল, ব্লুটুথ কানেক্টিভিটি, এলইডি লাইটিং, উন্নত সাসপেনশন মতো প্রযুুক্তি রয়েছে। ফ্রিডম-১২৫ এর বেস মডেলের দাম ১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা এবং টপ মডেলের দাম ১ লাখ ৫৪ হাজার টাকা ধরা হয়েছে। তাই এখন যাতায়াত যেমন সহজ হবে, তেমনি বাঁচবে পকেটের টাকাও।

সূত্র: কালবেলা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ