• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২৩ ১৪২৯

  • || ০৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

জাগ্রত জয়পুরহাট

জয়পুরহাটগামী চলন্ত ট্রেনে নবজাতকের জন্ম

জাগ্রত জয়পুরহাট

প্রকাশিত: ১৯ জুন ২০২২  

ঢাকা থেকে জয়পুরহাটগামী চলন্ত একতা এক্সপ্রেস ট্রেনে ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক নারী। শনিবার বিকালে জেসমিন বেগম নামের ওই নারী নওগাঁর আত্রাই স্টেশনে ছেড়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর সন্তান প্রসব করেন বলে জয়পুরহাট রেল স্টেশনের মাস্টার আব্দুর রাজ্জাক জানান।

২৬ বছর বয়সী ওই নারী জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার মোলামগাড়ীহাট-নানাহার গ্রামের তহিদুল ইসলামের স্ত্রী। বর্তমানে নবজাতক ও মা জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনা জানাজানির পর উৎসুক জনতা মা ছেলেকে দেখতে সেখানে যাচ্ছেন।

জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালের ত্বত্তাবধায়ক ডা. রাশেদ মোবারক জুয়েল জানান, হাসপাতালে মা ও শিশুকে সকল ধরনের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। তারা সম্পূর্ণ সুস্থ্ আছেন।

স্টেশন মাস্টার আব্দুর রাজ্জাক বলেন, জেসমিন স্বামী তহিদুল আনসার বাহিনীতে চাকুরির সুবাদে ঢাকায় থাকেন। জেসমিনও ঢাকায় থাকেন স্বামীর সঙ্গে। জেসমিনের প্রসবের তারিখ ছিল আরও সাতদিন। তিনি সকালে স্বামীর সঙ্গে ঢাকার কমলাপুর স্টেশন থেকে আন্তঃনগর একতা ট্রেনে করে জয়পুরহাটের উদ্দেশ্যে রওনা হন। ট্রেনটি কমলাপুর থেকে ছেড়ে ঈশ্বরদী আসার পর জেসমিনের প্রসব ব্যাথা শুরু হয়।

জেসমিন বলেন, তার প্রসব ব্যাথা ওঠার পর ট্রেনে অবস্থানকারী রেল পুলিশের এসআই মিজানুর রহমানকে জানানো হয়। তিনি তখনই ওই ট্রেনের কয়েক জন নারীকে দিয়ে ওই কামরায় কাপড় দিয়ে ঘিরে কৃত্রিম প্রসব কক্ষ তৈরি করে দেন। এ ছাড়া বিষয়টি জানার পর একই ট্রেনের যাত্রী রাফসানজানী নামের এক চিকিৎসক চিকিৎসা সেবাসহ প্রসব কাজের তদারকি করেন। স্বাভাবিক চিকিৎসা পদ্ধতি অবলম্বন করে প্রসব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন।

পরে জয়পুরহাটে ট্রেনটি বিরতি দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জেসমিনকে হুইল চেয়ারে করে নামিয়ে হাসপাতালে পাঠানো হয় বলে স্টেশন মাস্টার জানান।

জাগ্রত জয়পুরহাট
জাগ্রত জয়পুরহাট