মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০২৪ || ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

প্রকাশিত : ১০:৫২, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আপডেট: ১৭:১২, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

‌ওয়াগনারকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ ঘোষণা করছে যুক্তরাজ্য

‌ওয়াগনারকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ ঘোষণা করছে যুক্তরাজ্য

রাশিয়ার সশস্ত্র ভাড়াটে ওয়াগনার বাহিনীকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ অ্যাখা দিয়ে নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। এ জন্য পার্লামেন্টে একটি খসড়া প্রস্তাব পেশ করা হবে। এর মাধ্যমে গোষ্ঠীটির সব সম্পদ সন্ত্রাসী সম্পত্তি হিসেবে গণ্য এবং বাজেয়াপ্ত করা যাবে। খবর আল জাজিরা'র। ব্রিটেনের আরেক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে এসেছে, খসড়াটি পার্লামেন্টে বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) তোলা হতে পারে। কোনও সংগঠন সন্ত্রাসী কাজে লিপ্ত হলে সেটিকে সন্ত্রাসবাদ আইন ২০০০-এর অধীনে দেশটি ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে আখ্যা দিতে পারে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্র্যাভারম্যানের উদ্ধৃতি দিয়ে এএফপি জানিয়েছে, ‘ওয়াগনার একটি সহিংস ও ধ্বংসাত্মক গোষ্ঠী। ভ্লাদিমির পুতিনের সামরিক হাতিয়ার হিসেবে কাজ করেছে তারা। পুতিনের শাসনব্যবস্থা যে দানবকে সৃষ্টি করেছে, সময় এসেছে এর ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা করা। ক্রেমলিনের রাজনৈতিক লক্ষ্য পূরণে ওয়াগনারের অস্থিতিশীল কর্মকাণ্ড বৈশ্বিক নিরাপত্তায় হুমকি।

যদিও ওয়াগনারের একাধিক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার ওপর ইতামধ্যে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে যুক্তরাজ্য। এদের অনেকে আফ্রিকায় মানবাধিকার লঙ্ঘনে সম্পৃক্ত।গত জুলাইয়ে দলটির প্রতিষ্ঠাতা প্রিগোজিনের নেতৃত্বে রাশিয়ায় ঢুকে বিদ্রোহ করে কয়েক হাজার সশস্ত্র সদস্য। এ নিয়ে পুতিনের সঙ্গে সম্পর্ক চরম অবনতি হয়। সম্প্রতি রাশিয়ায় একটি বিমানে ভ্রমণের সময় বিধ্বস্ত হয়ে নিহত হন প্রিগোজিন। পুতিনের নির্দেশেই তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেন পশ্চিমা নেতারা।

জাগ্রত জয়পুরহাট

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ